26 সেই প্রভাকে

কোথাকার চন্দনের গন্ধে
আজও
সুকান্ত বারবার ফিরে আসে
এই নশ্বর পৃথিবীতে ।

ভালোবাসার সিঁড়িটে হোঁচট খেয়ে
বড্ড ছেলেমানুষী করে তোলে নিজেকে ।
অজান্তে ভিতরে জন্ম নেয়
ধূসর নির্মম বাস্তবতা
যার নাম,“যক্ষ্মা” ।

এ জন্য বোধহয়
ভবিষ্যত গা ঝাঁকিয়ে ঝিমিয়ে পড়ে ।
অন্যদিকে প্রভা কেমন যেন বদলে যায়
স্রেফ নিজের কথা ভেবে ।
শুধু সুকান্ত দেখেছিল
মিথ্যে রঙের লাল-নীল স্বপ্ন ;
হঠাৎ একসময় হুট করে না জানিয়ে
সুকান্ত চলে গেল শেষ ট্রেনে
অনেক অনেক দূরে।

সেদিনের চন্দনের সাথে সাথে
ধূলিসাৎ হয়ে গেল
একটি পরিচয়,
একটি অস্তিত্ব ।
সেদিন
সুকান্তের সেই ভালোবাসার নারীর
সানগ্লাসের আড়ালে
চোখের জল খুঁজে পাওয়া যায় নি ।
এমনকি বিমর্ষ হতেও দেখে নি ।
সেই নারী স্রেফ বিট্রে করে চলে গেল ;
অথচ সরল সুকান্ত সেই প্রতারণার সূক্ষ্ম অভিনয়
কোনদিন ধরতে পারে নি ।

অথচ সুকান্ত
আজও বোধহয় স্বর্গের দুয়ারে
দাঁড়িয়ে
ভালোবেসে এখনও অপেক্ষা করে
একটি নারীর জন্যে –
সেই প্রভাকে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *