3 নীলা

ডেটল গন্ধকে পানরত
মলিন শ্বত দেহের কেবিন
ধব্ধবে বিছানার চাদরে
নীলার উদ্বিগ্ন নিঃশ্বাসের স্বর ।
নিকটের বারান্দায়
দীর্ঘশ্বাসে পূর্ণ করি কালচে এস্ট্রেটা ,
জানালার বাইরে অপরিচিত অন্ধকারটা
প্রসব করে এক নতুন আকাশ ।

রাত্রির শেষ প্রহরে
ঘুমিয়ে থেকে নীলা মরে গেল ।
শেষ মুহূর্তগুলো গেছে
সংশয়ে , দ্বিধাতে , ভয়ে
আর জোরজবস্তির প্রার্থনায় ।
অথচ তখনও নীলা শক্ত করে
ধরে রেখেছিল আমার অসহায় হাত
কিন্তু নীলার সবটাই অজানা ।

একটা সময়
প্রবল ঘোরে ছিলাম অতীতের ডুবে ,
অচেনা স্বরগুলো বিশ্রীভাবে কেঁদে উঠল ,
‘নীলা চলে গেছে নিঃশব্দে ’।

ঐতো নীলা ঘুমিয়ে আছে ।
পরিচিত ঘ্রাণ মাখানো চুলে
নিষ্প্রভ হাত বুলিয়ে
নীলাকে ডাকলাম ,
প্রথমবারের মতন সে কোন উত্তর দিল না ।
নিঃশব্দে পর্দা ভেঙ্গে এল
উদ্ভাসিত আলোকিত সকাল,
কিন্তু নীলা নেই ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *